1. Nazmulislam8312@gmail.com : Bidhan Chakraborty : Bidhan Chakraborty
  2. yenboravisluettah@gmail.com : bimak73555 :
  3. liubomir8745@gmail.com : neoboxtcallect :
  4. test10960893@mailbox.imailfree.cc : test10960893 :
  5. test11024757@mailbox.imailfree.cc : test11024757 :
  6. test12897494@mailbox.imailfree.cc : test12897494 :
  7. test14770571@email.imailfree.cc : test14770571 :
  8. test14812676@email.imailfree.cc : test14812676 :
  9. test16697779@mailbox.imailfree.cc : test16697779 :
  10. test18946917@email.imailfree.cc : test18946917 :
  11. test22811147@email.imailfree.cc : test22811147 :
  12. test26718054@email.imailfree.cc : test26718054 :
  13. test27587170@email.imailfree.cc : test27587170 :
  14. test30217698@email.imailfree.cc : test30217698 :
  15. test32402305@email.imailfree.cc : test32402305 :
  16. test3470053@mailbox.imailfree.cc : test3470053 :
  17. test36191506@mailbox.imailfree.cc : test36191506 :
  18. test37304233@email.imailfree.cc : test37304233 :
  19. test37683316@email.imailfree.cc : test37683316 :
  20. test37895750@email.imailfree.cc : test37895750 :
  21. test38755778@mailbox.imailfree.cc : test38755778 :
  22. test3922275@mailbox.imailfree.cc : test3922275 :
  23. test41408743@mailbox.imailfree.cc : test41408743 :
  24. test45399974@email.imailfree.cc : test45399974 :
  25. test45407438@email.imailfree.cc : test45407438 :
  26. test47455642@mailbox.imailfree.cc : test47455642 :
  27. test48748669@email.imailfree.cc : test48748669 :
তানোর মডেল পাইলট স্কুলে সভাপতি ছাড়াই নিয়োগ পরীক্ষা  - দৈনিক একাত্তর প্রতিদিন
May 20, 2024, 12:22 pm

তানোর মডেল পাইলট স্কুলে সভাপতি ছাড়াই নিয়োগ পরীক্ষা 

  • Update Time : সোমবার, সেপ্টেম্বর ৪, ২০২৩
  • 47 Time View

তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধিঃ
রাজশাহীর তানোর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাইনুল ইসলাম সেলিমের বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। প্রধান শিক্ষকের পচ্ছন্দের প্রার্থীর চাকরি নিশ্চিত করতে। সভাপতি ব্যতিত গোপণে নিয়োগ পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। অথচ সভাপতি ব্যতিত নিয়োগ পরীক্ষা নেয়ার কোনো সুযোগ নাই। স্থানীয়রা জানান, তানোর মডেল পাইলট  উচ্চ বিদ্যালয়ে বিএনপি নেতার পুত্রকে চাকরি দেবার জন্য গোপনে নিয়োগ বোর্ড করা হয়। এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্থানীয় গণমাধ্যমে কর্মীরা এবিষয়ে সংবাদ সংগ্রহের জন্য স্কুলে যান। এসময় চাকরি প্রার্থীর বাবা মদ্যপ অবস্থায় নিজেকে এমপির লোক পরিচয় দিয়ে প্রকাশ্যে প্রধান শিক্ষককে ধাক্কা এবং গণমাধ্যম কর্মী, শিক্ষা কর্মকর্তা ও ডিজির প্রতিনিধিকে নানাভাবে হুমকি-ধামকির পাশাপাশি অপ্রকাশযোগ্য ভাষায় গালাগালি করেছে। গত ৩ সেপ্টেম্বর রোববার স্কুল মাঠ চত্বরে এই ন্যাক্কার জনক ঘটনা ঘটেছে। এসময় আতঙ্কে শিক্ষক-কর্মচারীরা এদিক-ওদিক ছোটাছুটি শুরু করে।  এদিকে নিয়োগ
পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে বহিরাগত মাদকসেবীর এমন জঘন্য কান্ডের খবর ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষক ও অভিভাবক সমাজ বিক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে।
জানা গেছে, চলতি বছরের ০৬ এপ্রিল তিনটি শূন্য পদে দ্বিতীয়বার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। সেই মোতাবেক রবিবার দুটি পদ স্থগিত রেখে কম্পিউটার ল্যাব অপারেটর পদে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। তবে নিয়োগ পরীক্ষা ও বোর্ডের সময় স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না উপস্থিত ছিলেন না। এদিন শারীরিক অসুস্থতার জন্য তিনি তানোরে আসেননি। ঘটনা গোপণ করেই সভাপতি ব্যতিত নিয়োগ বোর্ড গঠন ও পরীক্ষা নেয়া হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, বিগত ২০১৮ সালে জাতীয় নির্বাচনে আব্দুল লতিফ ধানের শীষের প্রার্থী প্রয়াত ব্যারিস্টার আমিনুল হকের জন্য বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে ব্যাপক ভূমিকা রাখেন। ওই সময় লতিফ সেচ্ছাসেবক দলের পৌরসভার সভাপতি ছিলেন। নির্বাচনের দিন তানোর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকার এজেন্টকে মারপিটসহ কর্মী-সমর্থকদের পিটিয়েছিল আব্দুল লতিব। এমনকি লতিব বাহিনী গ্রামের ভিতর সাধারণ ভোটারদের হুমকি দিয়েছিল নৌকায় ভোট দিলে পরিনতি ভাল হবে না। অথচ সেই লতিবের কন্যার চাকরি হয়েছে ভবানীপুর দাখিল মাদরাসায়, তার পুত্রের চাকরি হচ্ছে তানোর স্কুলে। আর আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তানেরা একটি চাকরির জন্য নেতাদের পিছনে ঘোরাঘুরি করে জীবন যৌবন শেষ করে দিচ্ছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সহকারী শিক্ষক বলেন, এই চকরির জন্য লতিবের কাছে থেকে তিন দফায়  ২২ লাখ টাকা নেয়া হয়েছে এবং প্রধান শিক্ষকের মাধ্যমে সভাপতির হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।
এবিষয়ে জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক মাইনুল ইসলাম সেলিম বলেন, নিয়োগ পরীক্ষা চলাকালীন প্রার্থীর পিতার প্রবেশ করা ঠিক হয়নি। সে মাতাল অবস্থায় আমাকেও ধাক্কা মেরেছে। সভাপতি নাই নিয়োগ বোর্ড পরীক্ষা কিভাবে হয় জানতে চাইলে তিনি জানান এসব বিষয়ে না জানায় ভালো। তবে আর্থিক লেনদেন ও অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। এবিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা  সিদ্দিকুর রহমান বলেন, পরীক্ষার সময় প্রার্থীর পিতা মাতাল অবস্থায় প্রধান শিক্ষককে ধাক্কা দেয়া অমানবিক কাজ। সভাপতি না থাকলে নিয়োগ পরীক্ষা, বোর্ড করা যায় কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান, সভাপতি উপজেলায় ছিল, পরীক্ষা হওয়ার পর সাক্ষর করে নেয়া হয়েছে। এবিষয়ে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়নার মোবাইলে একাধিকবার ফোন দেয়া হলেও বন্ধ পাওয়া যায়। এবিষয়ে জানতে চাইলে  রাজশাহী জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা  নাসির উদ্দীন বলেন, সভাপতি ছাড়া নিয়োগ পরীক্ষা ও বোর্ড হবে না, হলেও সেটা হবে অবৈধ।#

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BD IT HOST